অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম

হ্যালো ভিউয়ার্স, আশা করি সকলে অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের এই সাইটে আমার পক্ষ থেকে জানাই স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম এই বিষয় টি নিয়ে কথা বলবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করে দেওয়া যাক।

 

ছাত্র জীবনের মূল লক্ষ্যই হলো ভালো করে পড়াশোনা করে পরিক্ষায় ভালো একটি মার্ক অর্জন করা। বিশ্ব বিদ্যালয়ে পরিক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য শুধু ভালোভাবে পরিক্ষা দিলেই চলবে না বরং অ্যাসাইনমেন্ট ও খুব ভালো ভাবে লিখে জমা দিতে হয়।

অ্যাসাইনমেন্ট এর উপর একটি নির্দিষ্ট মার্ক থাকে যা পরিক্ষার মার্কের সাথে যুক্ত হয়। তবে আগে এই অ্যাসাইনমেন্ট বিশ্ব বিদ্যালয় এ দেওয়া হলেও করোণা কালীন সময়ের জন্য কিছুদিন আগ পর্যন্তও প্রতিটা স্কুল এবং কলেজে ও অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হচ্ছিল।

করোনা অনেকটা এখন ঝুকির বাইরে হওয়ায় এখন স্কুল এবং কলেজে অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া বন্ধ হলেও অনেক স্কুল ও কলেজ এখনো অ্যাসাইনমেন্ট দিয়ে থাকে ছাত্র ছাত্রী দের। কেননা এই অ্যাসাইনমেন্ট একজন শিক্ষার্থীর কতটুকু মেধা ও সৃজনশীলতা আছে তা যাচাই করে সাহায্য করে।

আর এই অ্যাসাইনমেন্ট সুন্দর ভাবে লিখে তা সুন্দর করে উপস্থাপন করতে না পারলে শিক্ষার্থীর মেধা ও সৃজনশীলতা কোনোটাই প্রকাশ পায় না। বিশেষ করে বিশ্ব বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের তো প্রায় প্রতিটি সপ্তাহে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে হয়।

তবে এখনো অনেকেই আছেন যারা অ্যাসাইনমেন্ট সঠিকভাবে লিখতে পারেন না অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম না জানার জন্য। ফলে এই অ্যাসাইনমেন্ট এর মার্ক থেকে পরিক্ষায় প্রাপ্ত মার্ক কম পান। তো আজকের এই আর্টিকেল এ আমরা অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানবো।

 

অ্যাসাইনমেন্ট কী

 

মূলত বলতে গেলে অ্যাসাইনমেন্ট হলো ছাত্র – ছাত্রী জীবনের একটি অংশ বিশেষ। বিশেষ করে যারা বিশ্ব বিদ্যালয়ে পড়েন তাদের তো প্রতিটি সপ্তাহেই অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে হয়। কেননা শিক্ষকরা এর মাধ্যমেই জানতে পারে একজন শিক্ষার্থী ঠিক কতটা মেধাবী।

See also  সুভা গল্পের সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর ২০২৩

আর সহজ ভাষায় বলতে গেলে, অ্যাসাইনমেন্ট হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে দেওয়া বাড়ির কাজের মতো। কেননা আমাদের বাসায় বসেই এই অ্যাসাইনমেন্ট করতে হয়। শিক্ষকরা একটি বিষয়ের উপর অ্যাসাইনমেন্ট দিয়ে দেয় এবং আমাদের তা বাসায় এসে নানা গবেষণা ও তথ্য উপাত্তের উপর ভিত্তি করে তা সম্পন্ন করতে হয়।

তবে শুধু অ্যাসাইনমেন্ট লিখলেই চলবে না, আমাদের জানতে হবে অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম। এই অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম সঠিকভাবে না জানার জন্যও কিন্তু অনেকে অ্যাসাইনমেন্ট লেখার পরেও ভালো মার্ক পায় না। তো আমরা নিম্নে অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানবো।

 

অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে যা যা লাগবে

 

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম জানার আগে আমাদের জানতে হবে অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে কী কী প্রয়োজন হয়। কেননা যে সকল জিনিসের প্রয়োজন হয় সেটা যদি না থাকে তাহলে আমরা কখনোই সঠিকভাবে তা পূরণ করতে পারবো না। তো আমরা নিচে জেনে নেই অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে কী কী প্রয়োজন হয়।

অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে যা যা লাগবেঃ-

১. প্রয়োজনীয় A4 পেপার লাগবে। কেননা এই পেপার গুলোই এসাইনমেন্ট লিখার জন্য বেস্ট। এবং সকলে ই এই পেপার গুলোই এসাইনমেন্ট লিখতে ব্যবহার করে।

২. কালো বল-পেন। এসাইনমেন্ট লিখার জন্য মূল কলম হিসেবে কালো কালির বল পেন ব্যবহার করাই উত্তম। এবং এটাই ব্যবহার করা উচিত।

৩. নীল কালীর কলম। (এক্ষেত্রে নীল কালীর কলম না থাকলে সাদা পেপার এর উপর ফুটে উঠে এমন কালীর কলম ও ব্যবহার করা যাবে। তবে লাল, কমলা এবং সবুজ কালীর কলম ব্যবহার করা যাবে না। কেননা এই কালির কলম বেশিরভাগই শিক্ষক রা ব্যবহার করে।)

৪. মার্জিন করার জন্য অবশ্যই একটি স্কেল এবং পেন্সিল রাখবেন।

৫. যে বিষয়ের উপর অ্যাসাইনমেন্ট লিখবেন সেই সম্পর্কীত যাবতীয় বই সমূহ।

৬. কভার পেজ

See also  শিক্ষা ও মনুষ্যত্ব সৃজনশীল প্রশ্ন উত্তর

উপরের উক্ত ৬ টি বিষয় বস্তু আপনার কাছে থাকলে আপনি নিজের মেধা খাটিয়ে সুন্দর একটি অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে পারবেন। তবে অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে হলে কভার পেজটির কিন্তু গুরুত্ব অনেক। এজন্য অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে হলে আপনার একটি কভার পেজ ও দরকার হবে।

তো এই কভার পেজ আপনি চাইলে নিজে লিখে তৈরি করতে পারেন কিংবা চাইলে আবার কম্পিউটারের মাধ্যমে তৈরি করে সেটা A4 পেপারে প্রিন্ট করে বের করে নিতে পারেন। তবে অ্যাসাইনমেন্ট এর কভার পেজ মূলত দুই ধরণের হয়ে থাকে। যথাঃ-

১. লোগো ছাড়া কভার পেজ।
২. লোগো সহ কভার পেজ।

লোগো ছাড়া কভার পেজ

এই ধরণের কভার পেজ চাইলে নিজেই হাতে লিখে তৈরি করা যায়। তবে মনে রাখতে হবে কভার পেজে কোনো রকম ভাবে কাটা কাটি করা যাবে না। এবং চেষ্টা করতে হবে হাতের লেখা যেনো সুন্দর হয়। মূলত কাজই হলো কভার পেজকে আকর্ষণীয় করে তুলতে হবে।

লোগো সহ কভার পেজ

প্রতিটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একটি করে আলাদাই লোগো থাকে। যেটি আপনারা যদি গুগলে সার্চ করেন তাহলেই পেয়ে যাবেন যদি সেটা গুগলে আপলোড করা হয় তো। তো এই ধরণের কভার পেজ এ প্রয়োজনীয় তথ্যর সাথে প্রতিষ্ঠান এর লোগো থাকতে হয়।

তো লোগো টি কিন্তু হাতে তৈরি করা খুব একটা সহজ না। যারা চিত্র অংকনে পারদর্শী তারা এটা করতে পারবে কিন্তু বাকিরা পারবে না। তো এর জন্য এই কাজটি কম্পিউটার দিয়ে করাই উত্তম।

 

আরো পড়ুনঃ দরখাস্ত লেখার নিয়ম ২০২২

 

কভার পেজের নমুনা

আমরা উপরে দুই ধরণের কভার পেজ সম্পর্কে জেনেছি। এবার আমরা উক্ত দুই ধরণের কভার পেজ সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো। একটি আদর্শ কভার পেজ এ কিছু বিষয় থাকা অত্যাবশ্যক। নিম্নে সেগুলো জানবোঃ-

১. প্রতিষ্ঠানের নাম। (যদি কম্পিউটার দিয়ে করা হয় তাহলে লোগো টাও দেওয়াত চেষ্টা করা উচিত)

২. অ্যাসাইনমেন্ট এর শিরোনাম।

৩. অ্যাসাইনমেন্ট এর বিষয়।

৪. কত নং অ্যাসাইনমেন্ট।

See also  এস এস সি ইংরেজি ২য় পত্র সাজেশন ২০২৩

৫. অ্যাসাইনমেন্ট টি কোন শিক্ষকের কাছে জমাকৃত হবে।

৬. শিক্ষার্থীর নাম, শ্রেণি, শাখা, রোল থাকতে হবে।

৭. জমা দেওয়ার তারিখ দিতে হবে।

নিচে আমরা দুইটি আদর্শ কভার পেজ এর নমুনা দেখবো।

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম
লোগো ছাড়া ও লোগো সহ কভার পেজের নমুনা

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম

আমরা উপরে অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে যা যা প্রয়োজন তা জেনেছি এবার আমরা অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো। অ্যাসাইনমেন্ট সুন্দর করে লিখতে হলে নিচের পয়েন্ট গুলো ফলো করুনঃ-

১. অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রথম পেজ হবে কভার পেজ। এবং অ্যাসাইনমেন্ট এর কভার পেজের পেছনের সাইডে কিছু লিখা যাবে না।

২. অ্যাসাইনমেন্ট এর জন্য সর্বদা A4 পেপারে লিখতে হবে এবং এই A4 পেপারের একসাইডে লিখতে হবে। অন্য সাইড ফাকা রাখতে হবে।

৩. অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রতিটা পেজ সুন্দর করে মার্জিন করতে হবে স্কেল ও পেনসিল এর সাহায্য।

৪. অ্যাসাইনমেন্ট টি সম্পূর্ণ কালো কালীর কলম দিয়ে লিখতে হবে। আর যদি চান তো মূল পয়েন্ট গুলো লাল, সবুজ, কমলা বাদে যে রঙটি সাদা কাগজে লিখলে বোঝা যায় সেই কালী দিয়ে লিখতে পারেন।

৫. অ্যাসাইনমেন্ট এর ভেতরের লেখা গুলো সহজ ও বোধগম্য ভাষায় লিখতে হবে। কাটা কাটি করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

৬. স্টাইলিস অক্ষর ব্যবহার না করে সকল অক্ষর একই মাপের লিখতে হবে।

৭. অ্যাসাইনমেন্ট টি সুন্দর করে উপস্থাপনের জন্য চিত্র ও যুক্ত করা যেতে পারে। তবে তা সম্পূর্ণ অ্যাসাইনমেন্ট এর বিষয়ের সাথে সম্পর্কীত থাকতে হবে।

৮. অ্যাসাইনমেন্ট লিখা যে পেজ এ শেষ হবে তার পরে আরো একটি পেজ যুক্ত করতে হবে।

তো এই ছিলো অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম। আশা করি এই অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম গুলো ফলো করলে আপনি খুব ভালো ভাবে একটি অ্যাসাইনমেন্ট তৈরি করতে সফল হবেন।

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম

শেষ কথা

তো ভিউয়ার্স আশা করছি এই পোস্ট টি আপনাদের কাছে অনেক টা ভালো লেগেছে। ভালো লেগে থাকলে কিন্তু অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আমাদের। আর এরকম সব পোস্ট পেতে প্রতিদিন ভিজিট করতে থাকুন আমাদের এই ওয়েব সাইট টি। আবার দেখা হবে পরবর্তী কোনো পোস্ট এ। সে পর্যন্ত সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেয।

Leave a Comment