নবম দশম শ্রেণিশিক্ষাসাজেশন

এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩

এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩

হ্যালো প্রিয় বন্ধুরা, আশা করি আপনারা সকলেই অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের এই সাইটে আমার পক্ষ থেকে জানাই স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩ এই বিষয় টি নিয়ে কথা বলবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করে দেওয়া যাক।

 

আমাদের জানা মতে সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী এসএসসি পরিক্ষা ২০২৩ আগামী বছর (২০২৩) সালের এপ্রিল মাসে এসএসসি পরিক্ষা শুরু হবে। তো তার জন্য দেখতে গেলে খুব বেশি একটা সময় নেই পরিক্ষার্থীদের কাছে। মাত্র ৪ মাস পড়ে আছে।

তো এই ৪ মাস ভালো করলে পড়লে আপনারা আশা করি পরিক্ষায় ভালো ফলাফল করতে পারবেন। তো আপনারা নিশ্চয়ই জানেন যে আপনাদের জন্য একটি শর্ট সিলেবাস দেওয়া হয়েছে প্রতিটা সাবজেক্ট এর জন্য।

তো আজকের এই পোস্ট এ আপনাদের সাথে এসএসসি ২০২৩ এর রসায়ন সাজেশন নিয়ে আলোচনা করবো।

 

এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩

আপনাদের জন্য আজকের আমাদের এই আর্টিকেল এ এসএসসি রসায়ন সাজেশন নিয়ে আলোচনা করা হবে।

 

এসএসসি রসায়ন পরিক্ষা মানবন্টন ২০২৩

এসএসসি রসায়ন পরিক্ষায় আপনাদের জন্য মান বন্টন কিভাবে করা হবে হয়তো অনেকে জানেন না। তো নিচে দেখে দিন কিভাবে এসএসসি রসায়ন পরিক্ষায় মান বন্টন করা হবে।

➤ নৈবিত্তিক – ২৫ নাম্বার
➤ সৃজনশীল – ৫০ নাম্বার
➤ ব্যবহারিক – ২৫ নাম্বার

অর্থাৎ এসএসসি ২০২৩ সালেও রসায়ন পরিক্ষায় কোনো প্রকার মানবন্টন পরিবর্তন করা হয় নি। তবে সকল অধ্যায় থেকে কিছু কিছু পাঠ কমিয়ে দেওয়া হয়েছে যা আপনারা শর্ট সিলেবাস এ পেয়ে যাবেন।

এভাবে এসএসসি রসায়ন পরিক্ষা ৫০ মার্কস এর হবে। সম্পূর্ণ আগের মতোই এসএসসি পরিক্ষা হবে ২০২৩ সালে। আর পরিক্ষার জন্য দেওয়া হবে ৩ ঘন্টা। যার মধ্য উক্ত বিষয় গুলো লিখতে হবে।

 

এসএসসি রসায়ন সাজেশন
এসএসসি রসায়ন সাজেশন

 

এসএসসি রসায়ন সাজেশন

এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩ আপনাদের জন্য নিম্নে দিয়ে দেওয়া হলো। সেগুলো আপনারা যদি সঠিক ভাবে শেষ করতে পারেন। তাহলে আপনারা এস এস রসায়ন পরিক্ষায় কমন পাবেন ইনশাআল্লাহ।

 

আরো পড়ুনঃ এসএসসি পদার্থ বিজ্ঞান সাজেশন ২০২৩

 

এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩

এসএসসি রসায়ন সাজেশন আপনাদের জন্য নিম্নে দেওয়া হলো। আশা করি সেগুলো আপনারা ভালো করে পড়লে পরিক্ষায় ভালো ফলাফল করতে পারবেন। নিম্নে সেগুলো দেওয়া হলো।

এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩

 

এসএসসি পরিক্ষার জন্য আপনাদের কয়েকটি অধ্যায় বই থেকে কমিয়ে শর্ট সিলেবাস করা হয়েছে। নিম্নে সেগুলো দেওয়া হলো।

১ম অধ্যায়: রসায়নের ধারণা
২য় অধ্যায়: পদার্থের অবস্থা
৩য় অধ্যায়: পদার্থের গঠন
৪র্থ অধ্যায়: পর্যায় সারণি
৫ম অধ্যায়: রাসায়নিক বন্ধন
৬ষ্ঠ অধ্যায়: মোলের ধারণা ও রাসায়নিক গণনা
৭ম অধ্যায়: রাসায়নিক বিক্রিয়া
১১শ অধ্যায়: খনিজ সম্পদ (জীবাশ্ম)

 

এসএসসি রসায়ন সাজেশন নৈবিত্তিক

এসএসসি রসায়ন পাঠ্য বই এ মোট ৫ টি অধ্যায় রয়েছে। সেখান থেকে কী কী বা কোন কোন নৈবিত্তিক আসবে তা বলা সম্ভব নয়। কেননা পুরো বই এর এক টি চ্যাপ্টার শেষ করলেই দেখা যাবে সেখান থেকে প্রায় ২৫০ থেকে ৩৫০ বা তার ও বেশি নৈবত্তিক প্রশ্ন ও তার উত্তর পাওয়া যাবে।

তো এত গুলোর মধ্য থেকে মাত্র কয়েকটি বলা সম্ভব নয়। আর বলা গেলেও সেগুলোই যে পরিক্ষা তে আসবে এমন নয়। তাই কষ্ট করে হলেও আমি সবাইকে বলবো সিলেবাস অনুযায়ী রসায়ন বই এর সকল অধ্যায় ভালো করে পড়ে নিবেন, এতে নৈবিত্তিক এ যথেষ্ট কমন পাবেন।

আর এছাড়াও আপনারা চাইলে আপনাদের কাছে থেকে গাইড এ দেওয়া নৈবিত্তিক গুলো ও পড়তে পারেন। এর সাথে বোর্ড বই এ থাকা নৈবিত্তিক গুলো পড়লেও আপনারা অনেকটা কমন পাবেন আশা করি।

এসএসসি রসায়ন সাজেশন সৃজনশীল

এসএসসি রসায়ন পরিক্ষায় আপনাদের কে ৫ টি সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। তো এর জন্য বেশি করে প্রতিটা অধ্যায় ভালো করে পড়তে হবে। এরই সাথে বিগত কয়েক বছরে হয়ে যাওয়া বোর্ড পরিক্ষার সৃজনশীল গুলো কীভাবে করা হয়েছে সেটা দেখে নিবেন।

আর নিজের শিক্ষক এর দ্বারা ভালো করে প্রতিটি অধ্যায় ভালো করে পড়ার চেষ্টা করবেন। আর যে অধ্যায় গুলো আপনাদের শর্ট সিলেবাসে আছে সেগুলোর অনুশীলনী এর সৃজনশীল গুলো করবেন। কমন পেলেও পেতে পারেন। আর বেশি বেশি প্র‍্যাক্টিস করতে হবে। এসএসসি পরিক্ষায় আসতে পারে এমন কয়েকটি সৃজনশীল আপনাদের জন্য দেওয়া হলো।

১. CO₂+ H₂O(1) (সূর্যালোক/ক্লোরোফিল) → X + Y – তাপশক্তি, বিক্রিয়াটি উদ্ভিদকোষে সংঘটিত হয় এবং X এর আণবিক ভর Y অপেক্ষা অনেক বেশি।

ক. COD কী?
খ. ক্ষার মিশ্রিত পানিকে তড়িৎ বিশ্লেষ্য পরিবাহী বলা হয় কেন?
গ. ‘উদ্দীপকের বিক্রিয়াটি পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় অপরিহার্য’ -ব্যাখ্যা কর।
ঘ. উদ্দীপকের বিক্রিয়ায় উৎপন্ন X যৌগ রাসায়নিক শক্তি সঞ্চিত রয়েছে— উক্তিটি ব্যাখ্যা কর।

২. i) মোম+O₂‌‌‌‌→A+B+C+শক্তি ii) U, Pu, Co, P

ক. PH কী?
খ. Fe² আয়ন সনাক্তকরণ ব্যাখ্যা কর।
গ. (i) নং সমীকরণে ভৌত ও রাসায়নিক পরিবর্তন উভয় সম্পন্ন হয়- ব্যাখ্যা কর।
ঘ. (ii) নং উদ্দীপকের মৌলগুলোর চিকিৎসা, কৃষি এবং বিদ্যুৎ উৎপাদনের ভূমিকা বিশ্লেষণ কর।

৩. “একটি মৌলের পরমাণুতে 13টি প্রোটন এবং 14 টি নিউট্রন বিদ্যমান।” (নিউট্রনের প্রকৃত ভর 1.675 x 10⁻²⁴g এবং প্রোটনের প্রকৃত ভর 1.67×10⁻²⁴g)

ক. তেজস্ক্রিয়তা কাকে বলে?
খ. 14c আইসোটোপের ব্যাখ্যা দাও।
গ. বর্ণিত মৌলের আপেক্ষিক পারমাণবিক ভর নির্ণয় কর।
ঘ. বর্ণিত মৌলের ইলেকট্রন বিন্যাসের মাধ্যমে যোজনী বিশ্লেষণ করো।

৪. কোনো মৌলের একটি পরমাণুর ভর 1.046 × 10-22 g। এতে 34টি নিউট্রন বিদ্যমান।

ক. যোজ্যতা ইলেকট্রন কাকে বলে?
খ. বেনজিন ও ইথাইনের স্থূল সংকেত একই ব্যাখ্যা কর।
গ. পর্যায় সারণিতে মৌলটির অবস্থান নির্ণয় কর।
ঘ. মৌলটি লঘু ও গাঢ় HNO₃ এবং H₂SO₄ এর সাথে বিক্রিয়া করলেও HCI এর সাথে বিক্রিয়া করে না বিশ্লেষণ কর।

৫. A, B, C তৃতীয় পর্যায়ের তিনটি মৌল যাদের শেষ কক্ষপথে 2, 3 ও 6 টি ইলেকট্রন আছে।

ক. বিগলন বলতে কি বুঝ?
খ. যৌগে ধাতুর জারণ সংখ্যা ধনাত্মক কেন হয়?
গ. উদ্দীপকের মৌলগুলোর আয়নীকরণ শক্তি তুলনা কর।
ঘ. A এবং C দ্বারা গঠিত যৌগটি কি ধরনের বন্ধন গঠন করবে ব্যাখ্যা কর।

৬. দশম শ্রেণির ছাত্র শাফিন ল্যাবরেটরিতে উপযুক্ত পরিবেশে 10g ম্যাগনেসিয়ামকে 5g অক্সিজেনের সাথে মিশিয়ে উত্তপ্ত করলো। এতে প্রত্যাশিত উৎপাদ 15g পাওয়া গেল না।

ক. শতকরা সংযুতি কী?
খ. মোলার দ্রবণ একটি প্রমাণ দ্রবণ ব্যাখ্যা করো।
গ. উদ্দীপকের ব্যবহৃত অক্সিজেনের অণু সংখ্যা নির্ণয় করো।
ঘ. উদ্দীপকের বিক্রিয়ায় প্রত্যাশিত উৎপাদ তৈরি না হওয়ার কারণ বিশ্লেষণ করো।

৭. H, S এবং O দ্বারা গঠিত একটি যৌগে H = 2.04% ও S = 32.65% যৌগটির আণবিক ভর 98.

ক. সবল এসিড কাকে বলে?
খ. Mg একটি মৃৎক্ষার ধাতু -ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকের যৌগটির আণবিক সংকেত নির্ণয় কর।
ঘ. উদ্দীপকের যৌগটির সাথে Ca ধাতুর বিক্রিয়া একটি জারণ বিজারণ বিক্রিয়া -বিশ্লেষণ কর।

৮. A, B ও C পর্যায় সারণিতে অবস্থিত তিনটি মৌল যাদের পারমাণবিক সংখ্যা 1, 7 ও 17

ক. আকরিক কাকে বলে?
খ. ফেনলের অ্যারোমেটিক যৌগ বলা হয় কেন?
গ. A ও B এর মধ্যে বন্ধন গঠন কৌশল ব্যাখ্যা কর।
ঘ. AB₃ এবং AC গ্যাসকে যদি একটি কাঁচ নলের দুই প্রান্তে আর্দ্র তুলা দ্বারা আটকানো হয় তবে সৃষ্ট ধোয়া AC প্রান্তের নিকট হয় কেন? যুক্তিসহ বিশ্লেষণ কর।

 

এসএসসি রসায়ন সাজেশন ব্যবহারিক

 

এসএসসি রসায়ন এ আপনারা ব্যবহারিক এ ২৫ মার্ক পাবেন। তবে এর জন্য আপনাদের নিজেদের প্র‍্যাক্টিকাল করতে হবে। আর এই প্র‍্যাক্টিকাল আপনাদের শিক্ষকরা সাইন করে দিবে যদি ঠিক থাকে।

আর এসএসসি পরিক্ষার আগেই প্র‍্যাক্টিকাল শেষ করতে হবে আর সেগুলো স্যারদের থেকে সাইন করিয়ে নিবেন।

 

এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩ সালের সকল টপিক নিয়ে আপনাদের সাথে আমরা প্রতিদিন একটি করে টপিক নিয়ে আলোচনা করা হবে। এর জন্য আপনাদের প্রতিদিন আমাদের এই ওয়েব সাইট এ ভিজিট করতে হবে।

আর এসএসসি রসায়ন সাজেশন বলতে আপনারা যদি উপরের সাজেশন গুলো সঠিক ভাবে শেষ করে ফেলেন তবে আপনি খুব ভালো ভাবে পরিক্ষা দিতে পারবেন এবং এসএসসি রসায়ন পরিক্ষায় অনেক কমন পাবেন।

এছাড়াও যদি আপনাদের আলাদা ভাবে কোনো সাজেশন লাগে প্রতিটা টপিক এর জন্য আলাদা আলাদা পোস্ট এ সাজেশন পাবেন। সেগুলো পাওয়ার জন্য আপনারা প্রতিদিন আমাদের এই ওয়েব সাইট এ ভিজিট করতে থাকুন।

 

শেষ কথাঃ

তো প্রিয় বন্ধুরা আজকের এই পোস্ট এ আপনারা জানলেন, এসএসসি রসায়ন সাজেশন ২০২৩ । আশা করছি এই পোস্ট টি আপনাদের কাছে অনেক টা ভালো লেগেছে।

ভালো লেগে থাকলে কিন্তু অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আমাদের। আর এরকম সব পোস্ট পেতে প্রতিদিন ভিজিট করতে থাকুন আমাদের এই ওয়েব সাইট টি তে। আবার দেখা হবে পরবর্তী কোনো পোস্ট এ। সে পর্যন্ত সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেয।

Related Articles