এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩

হ্যালো প্রিয় বন্ধুরা, আশা করি আপনারা সকলেই অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের এই সাইটে আমার পক্ষ থেকে জানাই স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩ এই বিষয় টি নিয়ে কথা বলবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করে দেওয়া যাক।

 

আমাদের জানা মতে সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী এসএসসি পরিক্ষা ২০২৩ আগামী বছর (২০২৩) সালের এপ্রিল মাসে এসএসসি পরিক্ষা শুরু হবে। তো তার জন্য দেখতে গেলে খুব বেশি একটা সময় নেই পরিক্ষার্থীদের কাছে। মাত্র ৪ মাস পড়ে আছে।

তো এই ৪ মাস ভালো করলে পড়লে আপনারা আশা করি পরিক্ষায় ভালো ফলাফল করতে পারবেন। তো আপনারা নিশ্চয়ই জানেন যে আপনাদের জন্য একটি শর্ট সিলেবাস দেওয়া হয়েছে প্রতিটা সাবজেক্ট এর জন্য।

তো আজকের এই পোস্ট এ আপনাদের সাথে এস এস সি ২০২৩ এর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন নিয়ে আলোচনা করবো।

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩

 

আপনাদের জন্য আজকের আমাদের এই আর্টিকেল এ এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন নিয়ে আলোচনা করা হবে।

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পরিক্ষা মানবন্টন ২০২৩

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পরিক্ষায় আপনাদের জন্য মান বন্টন কিভাবে করা হবে হয়তো অনেকে জানেন না। তো নিচে দেখে দিন কিভাবে এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পরিক্ষায় মান বন্টন করা হবে।

➤ নৈবিত্তিক – ৩০ নাম্বার
➤ সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর – ৭০ নাম্বার

অর্থাৎ এস এস সি ২০২৩ সালেও বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পরিক্ষায় কোনো প্রকার মানবন্টন পরিবর্তন করা হয় নি। তবে সকল অধ্যায় থেকে কিছু কিছু পাঠ কমিয়ে দেওয়া হয়েছে যা আপনারা শর্ট সিলেবাস এ পেয়ে যাবেন।

এভাবে এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পরিক্ষা ১০০ মার্কস এর হবে। সম্পূর্ণ আগের মতোই এস এস সি পরিক্ষা হবে ২০২৩ সালে। আর পরিক্ষার জন্য দেওয়া হবে ৩ ঘন্টা। যার মধ্য উক্ত বিষয় গুলো লিখতে হবে।

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩
এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩ আপনাদের জন্য নিম্নে দিয়ে দেওয়া হলো। সেগুলো আপনারা যদি সঠিক ভাবে শেষ করতে পারেন। তাহলে আপনারা এস এস বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পরিক্ষায় কমন পাবেন ইনশাআল্লাহ।

 

আরো পড়ুনঃ এস এস সি বাংলা ১ম পত্র সাজেশন।

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন আপনাদের জন্য নিম্নে দেওয়া হলো। আশা করি সেগুলো আপনারা ভালো করে পড়লে পরিক্ষায় ভালো ফলাফল করতে পারবেন। নিম্নে সেগুলো দেওয়া হলো।

 

এস এস সি পরিক্ষার সকল আপডেট জানতে সরকার প্রদত্ত অফসিয়াল ওয়েব সাইট ভিজিট করুন। লিংক নিম্নে রয়েছে।

Ssc Official Website

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন নৈবিত্তিক

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পাঠ্য বই এ মোট ৫ টি অধ্যায় রয়েছে। সেখান থেকে কী কী বা কোন কোন নৈবিত্তিক আসবে তা বলা সম্ভব নয়। কেননা পুরো বই এর এক টি চ্যাপ্টার শেষ করলেই দেখা যাবে সেখান থেকে প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ বা তার ও বেশি নৈবত্তিক প্রশ্ন ও তার উত্তর পাওয়া যাবে।

তো এত গুলোর মধ্য থেকে মাত্র কয়েকটি বলা সম্ভব নয়। আর বলা গেলেও সেগুলোই যে পরিক্ষা তে আসবে এমন নয়। তাই কষ্ট করে হলেও আমি সবাইকে বলবো সিলেবাস অনুযায়ী বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় বই এর সকল অধ্যায় ভালো করে পড়ে নিবেন, এতে নৈবিত্তিক এ যথেষ্ট কমন পাবেন।

আর এছাড়াও আপনারা চাইলে আপনাদের কাছে থেকে গাইড এ দেওয়া নৈবিত্তিক গুলো ও পড়তে পারেন। এর সাথে বোর্ড বই এ থাকা নৈবিত্তিক গুলো পড়লেও আপনারা অনেকটা কমন পাবেন আশা করি।

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন সৃজনশীল

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পাঠ্য বই এ মোট ৫ টি অধ্যায় রয়েছে। সেখান থেকে কী কী বা কোন কোন সৃজনশীল আসবে তা বলা সম্ভব নয়। কেননা পুরো বই এর এক টি চ্যাপ্টার শেষ করলেই দেখা যাবে সেখান থেকে প্রায় ৩০ টি থেকে ৪৫ টি বা তার ও বেশি সৃজনশীল প্রশ্ন ও তার উত্তর পাওয়া যাবে।

তবে বোর্ড বই এ যে সকল সৃজনশীল আছে সেগুলো চাইলেও আপনারা পড়তে পারেন। এতে কম পক্ষে ১-৩ টি হলেও কমন পাবেন পরিক্ষায়। আর প্রতিটা চ্যাপ্টার ভালো করে শেষ করলে আপনারা যে কোনো সৃজনশীল প্রশ্ন এর উত্তর লিখতে পারবেন।

তবে আজকের এই পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে ৫ টি অধ্যায়ের সমন্বয়ে কয়েকটি সৃজনশীল প্রশ্ন দিয়ে দিচ্ছি। সেগুলো যদি ভালো করে পড়েন তবে সেখান থেকে কমন পাবেন, না আমি এমন বলছি না। তবে সেখান থেকে একটু হলেও ধারণা পাবেন যে কিভাবে এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পরিক্ষা কীভাবে হবে তা বুঝতে পারবেন।

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন সৃজনশীল প্রশ্ন

নিম্নে কয়েকটি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় বিষয়ের সৃজনশীল দেওয়া হলো। সেগুলো থেকে আশা করি কিছুটা হলেও সাহায্য পাবেন।

১. “বিনা অপরাধে ৩ বছর ধরে কারাভোগ করছে জাহালম” শিরোনামে গণমাধানে প্রতিবেদন প্রকাশের পর জাহালমের আটকাদেশ কেন অবৈধ হবে না তা জানতে রুল জারি করে হাইকোর্ট। সোনালী ব্যাংকের অর্থ জালিয়াতি মামলায় ফুল আসামি আবু সালেকের বদলে পাটকল শ্রমিক জাহালমকে দুদকের মামলায় তিন বছর ধরে জেল খাটতে হয়। জামিন শুনানিতে আদালত বলেন, “নির্দোয় ব্যক্তিকে ১ মিনিটও কারাগারে রাখার পক্ষে আমরা না।” হাইকোর্ট তাকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ এবং ভুল তদন্তের সঙ্গে কারা জড়িত তা চিহ্নিত করতে নির্দেশ দেয়।

ক. অ্যারিস্টটলের মতে রাষ্ট্র কী?
খ. রাষ্ট্রের মুখ্য উপাদানটি ব্যাখ্যা করো
গ. জাহালমের ঘটনাটি আইনের অনুশাসন’-এর কোন ধারণার পরিপন্থী? ব্যাখ্যা করো।
ঘ. “হাইকোর্টের আদেশে জাহালমের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত হয়েছে” – এ বক্তব্যের সাথে তুমি কি একমত? উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও।

 

২.শহিদ দিবসের অনুষ্ঠানে নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা একটি নাটক করছিল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক তরুণ শিক্ষক জেলখানায় বসে নাটকটি রচনা করেন । নাটকের একটি দৃশ্যে পুলিশ ইন্সপেক্টর ‘হাফিজ’ গুলি করে ছাত্র হত্যা ও লাশ গুম করার কাজে নিয়োজিত। কিন্তু কবরস্থানের মুর্দা ফকির লাশের কথা জেনে গেছে ভেবে রাজনৈতিক নেতা ভয় পেলে তাকে আশ্বস্ত করে হাফিজ বলে, “মুর্দা ফকির ঝড়ও বোঝে না, আগুনও বোঝে না। একটি দাবিতে ছাত্ররা মিছিল বের করেছিল বলে, পুলিশ তাদের কয়েকটিকে খতম করে দিয়েছে—এ কথা বোঝার মতো জ্ঞান-বুদ্ধি ওর নেই।” দৃশ্যের একটি পর্যায়ে মুর্দা ফকির বলে, “এ লাশের গন্ধ অন্যরকম। এ মুর্দা কবরে থাকবে না। বিশ-পঁচিশ-ত্রিশ হাত যত নিচেই মাটি চাপা দাও না কেন-এ মুর্দা থাকবে না। কবর ভেঙে বেরিয়ে আসবে।”

ক. যুক্তফ্রন্ট কী?
খ. ছয় দফাকে বাঙালির মুক্তির সনদ বলা হয় কেন?
গ. উদ্দীপকে বাংলাদেশের ইতিহাসের যে ঘটনার ছবি ফুটে উঠেছে তার পটভূমি ব্যাখ্যা করো।
ঘ. মুর্দা ফকিরের মন্তব্যে বাংলাদেশের ইতহাসে উক্ত ঘটনার পরবর্তী আন্দোলন-সংগ্রামের সাদৃশ্য আছে কি? যুক্তিপূর্ণ আলোচনা কর।

 

৩. মামুন দশম শ্রেণির একজন ছাত্র। এ বছর বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সীমান্ত সংলগ্ন একটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমিতে শিক্ষাসফরে যায়। যাওয়া-আসার পথে সে রাস্তার কাছাকাছি পাহাড়গুলোতে অনেক ঝরনা দেখতে পায়। সেখানকার পানির ছড়া ও নদীগুলোতে ছিল ব্যাপক স্রোত। অথচ ভরা বর্ষা মৌসুমেও তার এলাকায় সে দেখে এসেছে, পানির অভাবে ধানের বীজতলা তৈরি বা ধান রোপণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

ক. ভূমিকম্পের কেন্দ্র কাকে বলে?
খ. বাংলাদেশে খুব বেশি শীত এবং খুব বেশি গরম অনুভূত হয় না কেন?
গ. মামুনের ভ্রমণকৃত এলাকার ভূ-প্রকৃতিগত বৈশিষ্ট্য ব্যাখ্যা করো।
ঘ. মামুনের নিজ এলাকা এবং ভ্রমণকৃত এলাকার মধ্যে বৃষ্টিপাতের তারতম্যের সাথে স্থানীয় জলবায়ুর সম্পর্ক বিশ্লেষণ করো।

 

৪. দুই বান্ধবীর মধ্যে কথোপকথনঃ
ইভাঃ আমার বাবা একজন সরকারি কর্মকর্তা। তিনি তার এলাকায় ভালো ফসলের জন্য কৃষকদের পরামর্শ দেন। তিনি বীজ ও সার সরবরাহ করেন ।
প্রভাঃ গতকাল আমার বাবা একজন এতিম শিশুর দেখভালের জন্য একজনকে অভিভাবক নিযুক্ত করে দিয়েছেন। যারা এতিম শিশুটির সম্পত্তি জোর করে ভোগ দখল করে রেখেছিল তাদেরকে শাস্তির আদেশ দিয়েছেন।
ইভাঃ আমরা বাবা সরকারি যে-কোনো আদেশ নিজে পালন করেন এবং কর্মচারিদের দিয়ে করান। তোমার বাবা কি শাস্তি নিজে কার্যকর করেন?
প্রভাঃ না, এ দায়িত্ব পালন করোর জন্য তোমার বাবার কর্মরত বিভাগের অন্যদের দায়িত্ব রয়েছে।

ক. স্থানীয় প্রশাসনের মুখ্য উদ্দেশ্য কী?
খ. স্থানীয় সরকারের উন্নয়নে ত্বরিত উদ্যোগ গ্রহণ করা সম্ভব হয় কেন?
গ. ইভার বাবা সরকারের কোন বিভাগে কাজ করেন? ব্যাখ্যা করো।
ঘ. প্রভার বাবার কাজ কি শুধু এতিম শিশুদের অধিকার রক্ষা করা? তোমার উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও।

 

৫. আফিয়া একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার হয়ে কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করেন। তিনি তাদের আবাসন বা প্রত্যাবাসনের জন্য বাংলাদেশ ও মায়ানমার- অধিকাংশ ব্যায় নির্বাহ হয়ে থাকে। অন্যদিকে সাদিয়া জাতিসংঘের প্রতিনিধি হিসেবে এর মধ্যে সমন্বয়ের কাজ করেন । তার সংস্থার মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের ভরণপোষণের লক্ষ করেন যে, দেশে নারী-পুরুষের সমান অধিকার থাকলেও অধিকাংশ সামাজিক বা অর্থনেতিক ক্ষেত্রে নারীর চেয়ে পুরুষের অংশগ্রহণ বেশি। এক্ষেত্রে নারী যাতে সমান সুযোগ পায় সেজন্য তিনি এ বিষয়ের কিছু ধারা অনুসারে কাজ করেন।

ক. জাতিসংঘের একটি উদ্দেশ্য লেখো।
খ. জাতিসংঘের সবথেকে কার্যকর পরিষদের ব্যাখা কর।
গ. আফিয়া আন্তর্জাতিক কোন অঙ্গসংস্থায় কর্মরত? ব্যাখ্যা দাও।
ঘ. তুমি কি মনে করো, নারীর প্রতি বৈষম্য বিলোপে সাদিয়ার কার্যক্রম নারীর প্রতি প্রতিবন্ধকতা দূর করবে? ব্যাখা করো।

 

৬. জনাব আকিবের খুলনা শহরের কেন্দ্রস্থলে একখন্ড জমি ছিল। তিনি সেখানে সাত তলাবিশিষ্ট একটি ভবন নির্মাণ করে একটি হাসপাতাল চালু করে। প্রথমদিকে রোগীর সংখ্যা কম হলেও বর্তমানে তার এ প্রতিষ্ঠান থেকে আয় হয় প্রচুর। তার প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফি অন্য প্রতিষ্ঠান থেকে বেশি। তিনি সেখানে অনেক ডাক্তার, নার্স, কর্মচারী নিয়োগ করেছেন। তাদের যথেষ্ট পরিশ্রম করতে হয়। কিন্তু মাস শেষে তাদের অনেককে পারিশ্রমিক নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায়।

ক. উপযোগ কাকে বলে?
খ. উৎপাদনের উৎপাদিত উপাদানটি ব্যাখ্যা করো।
গ. জনাব আকিবের পরিচালিত হাসপাতালটি মালিকানার ভিত্তিতে কোন ধরনের সম্পদ? ব্যাখ্যা করো।
ঘ. জনাব আকিবের সুবিধা ভাগের সাথে ধনতান্ত্রিক অর্থনীতির বৈশিষ্ট্যের সম্পর্ক বিশ্লেষণ করো।

 

৭. তামান্না তার ঢাকা বিশ্বাবিদ্যালয় পড়ুয়া বান্ধবীর বিয়েতে সিলেটের গোয়াইনঘাট গিয়েছিল। তার বিয়ের পাত্র-নির্বাচন, বিয়ের দাওয়াত, খাওয়া-দাওয়া ইত্যাদি সকল কাজে তার অভিভাবকের বিশেষ করে তার মায়ের ভূমিকা ছিল চোখে পড়ার মতো। বিয়ের কোনো ব্যাপারে তার বান্ধবীর মতামতের কোনো মূল্য ছিল না। তামান্না বিস্ময়ের সাথে লক্ষ করে যে, বিয়ের পরে তার বান্ধবীর স্বামী। তার বান্ধবীর মায়ের বাড়িতেই থাকছে। সে এও জানত পারে যে, তার বান্ধবীর মায়ের মৃত্যুর পর তার সকল সম্পত্তির উত্তরাধিকার হবে তার বান্ধবী।

ক. সামাজিক গোষ্ঠী কী?
খ. মানুষের জীবনধারার মান পরিমাপক সামাজিকীকরণের উপাদানটি ব্যাখ্যা করো।
গ. তামান্নার বান্ধবী যে ধরনের পরিবারে বাস করে তা ব্যাখ্যা করো।
ঘ. বর্তমান পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে তামান্নার বান্ধবীর বিবাহের প্রচলিত প্রথাটি লোপ পেয়েছে কি? উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও।

 

৮. সম্প্রতি একটি স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ‘x’ নামের একজন ছাত্র বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। সে অনেক মেধাবী। তার মা-বাবা দুজনেই চাকরি করেন। সে মাঝে মাঝে বন্ধুদের সাথে স্কুল ফাঁকি দিত। সে টিভিতে বিদেশি চলচ্চিত্র দেখা এবং মোবাইল ফোনে বন্ধুদের সাথে চ্যাটিং করত। তাকে অনেক খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে তার বাবা পুলিশের শরণাপন্ন হন। পুলিশ তাকে দেশের অন্য প্রান্ত থেকে উদ্ধার করে। একটি প্রতিষ্ঠিত স্কুলের নবম শ্রেণির একজন শিক্ষার্থীকে ‘y’ নামক একজন যুবক ইভটিজিং করত। এক পর্যায়ে তার হাতে উক্ত শিক্ষার্থী নিহত হয়। সম্প্রতি বিচারে ‘Y’ -এর মৃত্যুদন্ডের আদেশ জারি হয়েছে।

ক. মূল্যবোধ কী?
খ. সামাজিক বিশৃঙ্খলার চরম রূপটি ব্যাখ্যা করো।
গ. ‘X’ কোন সামাজিক সমস্যার সাথে জড়িত? ব্যাখ্যা করো।
ঘ. ‘Y’ -এর মৃত্যুদন্ড উত্ত সহিংসতা প্রতিরোধের একমাত্র উপায় বলে কি তুমি মনে করো? তোমার উত্তরের সপক্ষে যক্তি দাও ।

 

৯. সাবিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে। তার বাড়ি মেহেরপুর । সেখানে থেকে ঢাকা আসা- যাওয়ার পথে দৌলতাদিয়া ফেরিঘাটে ফেরির জন্য তাকে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয়। দুঃসহ যানজটে তার সময় ও উৎসাহ দুটোরই ক্ষতি হয়। পদ্ম সেতু নির্মিত হলে এ সমস্যা কিছুটা কাটবে বলে সে মনে করে। সাবিতের জন্মের আগে তার বাবার আয় ছিল মাত্র ৫,০০০ টাকা । বাবা বলেছে তখন ১০০ টাকা খরচে ঢাকা যাওয়া যেত। তার বাবার বর্তমান মাসিক আয় ৩০,০০০ টাকা। কিন্তু এখন সাবিতের একটি উন্নতমানের বাসে ঢাকায় আসা-যাওয়া করতে খরচ পড়ে অন্তত ১,০০০ টাকা । পূর্বের তুলনায় সাবিতের বাবার আয় বেড়েছে তবে তার সাথে সাবিতের জন্মের মাধ্যমে পরিবারের লোকসংখ্যাও একজন বেড়েছে।

ক. মাথাপিছু আয় কী?
খ. মোট জাতীয় আয় হিসাব করতে শুধু চূড়ান্ত দ্রব্য হিসাব করা হয় কেন?
গ. সাবিতের মতো লোকজন কোন ধরনের অর্থনৈতিক প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন? ব্যাখ্যা করো। ঘ. তুমি কি মনে করো, সাবিতদের পরিবারে অর্থনেতিক উন্নতি হয়েছে? উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও ।

 

১০. প্লাস্টিক গলিয়ে ছাঁচে ফেলে পুতুল তৈরির পর রং দিচ্ছে নারী শ্রমিকেরা। এই কাজে নারী শ্রমিকেরাই বেশি যুক্ত। প্রতি মাসে ৫-৬ হাজার টাকা পর্যন্ত মজুরি পায়। কামরাঙ্গী চরের এই নারীরা এভাবেই তাদের ভাগ্য ফেরাতে সক্ষম হয়েছে। তারা তাদের সন্তানদের লেখাপড়ার প্রতি আগ্রহী করে তুলছে, পরিবারে তাদের গুরুত্ব বেড়েছে।

ক. সামাজিক পরিবর্তন সম্পর্কে ম্যাকাইভারের সংজ্ঞা লেখ।
খ. সামাজিক পরিবর্তনের উপাদান “প্রযুক্তি” ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপক অনুযায়ী কীভাবে নারীর ক্ষমতায়ন ঘটতে পারে? মন্তব্যটি বিশ্লেষণ কর ।
ঘ. “পরিবর্তন সবসময় আমাদের জন্য আর্শীবাদ নয়”- মন্তব্যটি বিশ্লেষণ কর

 

১১. রাফাত ঢাকায় বসে একবার অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে অনুষ্ঠিত অলিম্পিক গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখছিল। অনুষ্ঠান শুরুর সময় সিডনির স্থানীয় সময় ছিল রাত সাড়ে ৯টা। কিন্তু তার ঘড়িতে সময় দেখতে পেল বিকাল ৪টা। প্রচণ্ড গরমের মধ্যে সে যখন অনুষ্ঠানটি দেখছিল তখন প্যালারির দর্শকদের পায়ে ছিল মোটা গরম কাপড়। একই সময়ে দুই দেশের দুই রকম তাপমাত্রা দেখে সে যথেষ্ট অবাক হয়।

ক. অধিবর্ষ কী?
খ. সূর্য ও পৃথিবীর নিকটতম অবস্থানকে কী বলে? ব্যাখ্যা করো।
গ. ঢাকা যদি ৯০° পূর্ব দ্রাঘিমায় অবস্থিত হয় তাহলে উদ্দীপকের বক্তব্য অনুসারে সিডনির দ্রাঘিমা কত?
ঘ. রাফাত যে ঘটনার জন্য অবাক হয়েছিল তার কারণ বিশ্লেষণ করো।

 

এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩ সালের সকল টপিক নিয়ে আপনাদের সাথে আমরা প্রতিদিন একটি করে টপিক নিয়ে আলোচনা করা হবে। এর জন্য আপনাদের প্রতিদিন আমাদের এই ওয়েব সাইট এ ভিজিট করতে হবে।

আর এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন বলতে আপনারা যদি উপরের সাজেশন গুলো সঠিক ভাবে শেষ করে ফেলেন তবে আপনি খুব ভালো ভাবে পরিক্ষা দিতে পারবেন এবং এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় পরিক্ষায় অনেক কমন পাবেন।

এছাড়াও যদি আপনাদের আলাদা ভাবে কোনো সাজেশন লাগে প্রতিটা টপিক এর জন্য আলাদা আলাদা পোস্ট এ সাজেশন পাবেন। সেগুলো পাওয়ার জন্য আপনারা প্রতিদিন আমাদের এই ওয়েব সাইট এ ভিজিট করতে থাকুন।

 

শেষ কথা

তো প্রিয় বন্ধুরা আজকের এই পোস্ট এ আপনারা জানলেন, এস এস সি বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় সাজেশন ২০২৩ । আশা করছি এই পোস্ট টি আপনাদের কাছে অনেক টা ভালো লেগেছে।

ভালো লেগে থাকলে কিন্তু অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আমাদের। আর এরকম সব পোস্ট পেতে প্রতিদিন ভিজিট করতে থাকুন আমাদের এই ওয়েব সাইট টি তে। আবার দেখা হবে পরবর্তী কোনো পোস্ট এ। সে পর্যন্ত সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেয।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *