ছেলেদের বিচির দাম কত ২০২৪

কি ভাই বিচি বেচবেন নাকি কিনবেন? হা হা হা অদ্ভুদ এক সার্চ কোয়েরি ছেলেদের বিচির দাম কত ২০২৪। যদিও প্রশ্নটা হাস্যকর তবুও যেহেতু এ ব্যাপারে পাঠক আগ্রহী। তাহলে একজন ব্লগার হিসবে আমার দায়িত্ব ছেলেদের বিচির সঠিক দাম সম্পর্কে ধারনা দেবার।

বিচি মানব শরীরের এক অদ্ভূদ ফান্ডামেন্টাল। বিচি এক গরুত্বপূর্ণ উপাদান বিশেষ করে ছেলেদের জীবনে। এই বিচি নিয়ে যেন কৌতুহল ও আগ্রহের শেষ নেই। কৌতুহলের এক নিদারুণ কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে বিচি হা হা হা।

ছেলেদের বিচির দাম কত

আপনি কি জানেন আপনার দুই পায়ের ফাঁকে ঝুলে আছে ৬০ লাখ টাকা!৷ আপনার একটা বিচির দাম ৩০ হাজার ডলার। ওয়াও ম্যান ওয়াও!!

আন্তর্জাতিক এক গবেষণায় জানা গেছে, মানব অঙ্গগুলোর প্রতিস্থাপনের অধিনে এই বিচি বা অন্ডকোষ প্রতিস্থাপনের ব্যায়ই হচ্ছে প্রায় ৬০ হাজার ডলার।

সোজা কথা আপনার দুই ঠ্যাং এর মাঝখানে ৬০ হাজার ডলার নিয়ে ঘুরতেছেন!

এর মানে আপনি যখনি বিচি ঝুলাচ্ছেন, চুলকাচ্ছেন, লাড়াচ্ছেন, ঘোষছেন, তার অর্থ আপনি অর্ধ কোটি টাকা নিয়ে খেলছেন!

আজ থেকে নিজেকে ফকির না ভেবে কোটিপতি ভাবতে শুরু করুন। বেশী করে বিচির যত্ন নিন

ছেলেদের বিচির দাম কত বাংলাদেশ

বাংলাদেশে ছেলেদের বিচির দাম কত এই তথ্য আমার জানা নাই। ছেলেদের বিচির দাম বাংলাদেশে মিনিমাম ৫০/৬০ লাখ তো হবেই। তবে প্রয়োজনের তাগিদে দাম কম বেশি হতে পারে।

হিজরাদের লজ্জাস্থান কেমন জানুন

মানুষের বিচির দাম কত

মানুষের বিচির দাম কত সেটা নির্ভর করে চাহিদা ও যোগানের উপর। যে জিনিসের চাহিদা বেশী জোগান কম সেই জিনিসের দাম বেশীই হয় সবসময়। যেহেতু মানুষের বিচির জোগান একদমই কম তাতে বলা যায় যদি বিচির চাহিদা কমও হয় তবুও দাম অনেক বেশী হবে।

See also  ডিজিটাল বাংলাদেশ কুইজ প্রতিযোগিতার প্রশ্ন , রেজিষ্ট্রেশন ,ফলাফল সহ বিস্তারিত

ছেলেদের নুনুর দাম কত?

ছেলেদের বিচির দাম জানতে চাওয়াটা যুক্তি যুক্ত হলেও ছেলেদের নুনুর দাম কত এই প্রশ্ন একদম অযৌক্তিক এবং আত্মঘাতী। ছেলেদের নুনু কখনো বিক্রি হয় না

ছেলেদের বিচির দাম কত ২০২৩

ছেলেদের বিচির দাম কত ২০২২

এখন ২০২২ সাল হঠাৎ কি মনে করে বিচি বিক্রি করতে চান?? বিচি বিক্রি করে গার্লফ্রেন্ড কে আইফোন কিনে দিবেন? ভুলেও এমন সিধান্ত নিয়েন না।

আসলেই কি ছেলেদের বিচি বিক্রি করা যায়??

এতক্ষণ তো বিচি বিক্রি নিয়ে অনেক কথা বললাম অনেকেই মনে মনে বিচি বিক্রির সিধান্ত নিয়েছেন হয়তো। আপনাকে অভিনন্দন অতি দ্রুত আপনার ঝুলে থাকা বিচি বেচে দিয়ে কোটিপতি হয়ে যান। বউ কে নিয়ে ঘুরে বেড়ান দেশ বিদেশে। কারন আপনার তো টাকার অভাব নাই বিচি বিক্রি করে আপনি এখন কোটিপতি!

আসলে বাংলাদেশে মানুষের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিক্রি করা নিষিদ্ধ। আপনি চাইলে আপনার যেকেন অঙ্গ বিনামুল্যে দান করে দিতে পারেন কিন্তু বিক্রি করা যাবে না। তবে অনেকেই কালোবাজারে নিজের মুল্যবান অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিক্রি করেন টাকার অভাবে। বিভিন্ন ক্লিনিক এবং বেসরকারি হাসপাতালে দালালরা এসব অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কারবারের জড়িত।

বিচি বিক্রি করা কি জায়েজ ?

ইসলামের দৃষ্টিতে ছেলেদের বিচি বিক্রি করা জায়েজ না। শুধু বিচি না ইসলামের দৃষ্টিতে মানুষের কোন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিক্রি করা বৈধ নয়।

মানবদেহে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংযোজন আইন, ১৯৯৯’ নামে বাংলাদেশের আইনটিতে বলা হয়েছে, অসুস্থ ব্যক্তিকে তাঁর নিকট আত্মীয়রা অঙ্গপ্রত্যঙ্গ দান করতে পারবেন৷ তবে বাংলাদেশে মৃত ব্যক্তিদের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সংগ্রহ করা প্রায় অসম্ভব ব্যাপার৷ কেননা, মৃত্যুর আগে কেউ তাঁর অঙ্গপ্রত্যঙ্গ দানের অঙ্গীকার করলেও মারা যাওয়ার পর তাঁর স্বজনরা এ ব্যাপারে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই আগ্রহী হননা৷

এ ছাড়া এই ব্যাপারটি নিয়ে তেমন মাথাও ঘামানো হয়না৷ তাই সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তিদের সুস্থ লিভার বা কিডনি সংগ্রহ করা সম্ভব হয় না৷ বাংলাদেশে ১৯৮২ সালে কিডনি প্রতিস্থাপন শুরু হয়৷ তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে জীবিত ব্যক্তিদের দান করা কিডনিই ব্যবহৃত হচ্ছে৷

See also  হিজরাদের লজ্জাস্থান কেমন?

শেষকথাঃ

ছেলেদের বিচির দাম কত সেটাতো জানলেন। এখন কি আপনার বিচি বিক্রি করে দিতে চান? বিচি বিক্রি করতে চাইলে কবরস্থানে গিয়ে লাইনে খারান আমি ওজু করে আসতেছি। খোদা হাফেজ।

Leave a Comment