জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারিতা

হ্যালো প্রিয় বন্ধুরা, আশা করি আপনারা সকলেই অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের এই সাইটে আমার পক্ষ থেকে জানাই স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারিতা এই বিষয় টি নিয়ে কথা বলবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করে দেওয়া যাক।

 

আপনারা কিন্তু অনেকেই সার্চ করে থাকেন জিংক বি ট্যাবলেট সম্পর্কে। অনেকেই এটি সম্পর্কে জানতে চান। তাই আপনাদের সুবিধার জন্য আজকে আমরা এই টপিক টি নিয়ে আর্টিকেল সাজিয়েছি। আমরা আজকের পোস্ট এ জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারীতা সম্পর্কে জানবো। কেন এটি খাওয়া দরকার, জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম ইত্যাদি বিষয়ে জানবো

 

জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারীতা

 

আপনারা যদি একটু ঘাটা ঘাটি করে দেখেন তাহলে কিন্তু দেখতে পারবেন জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার এর অনেক উপকারিতা রয়েছে। তবে অনেকেই আছেন যারা জানেন না যে জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারীতা সম্পর্কে। তো আপনাদের জন্য আমি নিচে জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারীতা তুলে ধরলাম

  1. অরুচি দূর করতে এটি আপনাদের সাহায্য করবে।
  2. খাদ্য পরিপাকে দারুন সাহায্য করে এটি।
  3. এই ট্যাবলেট সেবনের ফলে ডিহাইড্রেশন এর উপকার হয়।
  4. এই ট্যাবলেট টি ছোট বাচ্চাদের লিকলিকে স্বাস্থ্য কমতি দূর করার জন্য ডাক্তার রা সাজেস্ট করে থাকেন।
  5. এই ঔষধ এর প্রধান উপকারিতা হলো স্ট্যান্ডিং রোধ করে এবং উচ্চতা বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখে।

এছাড়াও আপনি ডাক্তারের সহায়তা বা পরামর্শ নিতে পারেন এতে আপনি এই ঔষধ সম্পর্কে আরো তথ্য পাবেন। নিম্নে আমরা জিংক বি ট্যাবলেট সম্পর্কে আরো জানবো।

 

জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মানুষ মোটা হয়

 

আপনি যদি জিংক বি ট্যাবলেট খান তাহলে অবশ্যই আপনারা নানা উপকারে আসবে এই ঔষধ টি। যেমন আপনার উচ্চতা বৃদ্ধি পাবে, স্বাস্থ্য বৃদ্ধি পাবে ইত্যাদি। এছাড়াও এটি শরীরের ক্ষুধা বৃদ্ধি করে এবং শরীরকে গতিশীল রাখতে সাহায্য করে।

অনেকেই ভেবে থাকেন যে এই ট্যাবলেট টি খেলে মানুষ মোটা হয়৷ তবে এটি একটি ভূল ধারণা। মূলত এই ঔষধ টি শরীরের ভিটামিনের ঘাটতি পূরণ করতে সাহায্য করে। এবং ভিটামিন এর ঘাটতি পূরণ হলেই মানুষ সব কিছু খেতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করে ফলে সাস্থ্য বৃদ্ধি পায়।

ডাক্তাররা আমাদেরকে এই জিংক বি ট্যাবলেট দিয়ে থাকেন মূলত ভিটামিন বি এর ঘাটতি পূরণ করার জন্য। তবে মনে রাখবেন এই ঔষধ টি প্রয়োজনের বেশি খাওয়া স্বাস্থ্যর পক্ষে ঝুকিপূর্ণ। তাই খাওয়ার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিবেন।

 

আরো পড়ুনঃ কৃমির ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম।

 

জিংক এর অভাবে কি সমস্যা হতে পারে

 

জিংক মূলত নানাভাবে আমাদের জন্য প্রয়োজনীয়। এটি আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে, খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে, প্রজনন এর জন্য এটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ আবার মানসিক বিকাশের জন্য জিংক এর গুরুত্ব অনেক।

এছাড়াও জিংক গর্ভাবস্থায়, শৈশব এবং কৈশোর সময়কালকে স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও গঠনে সাহায্য করে। এই সব বিষয় ছাড়াও জিংক আরো নানা কাজে সাহায্য করে। যেমনঃ দেরিতে ঘা শুকানো, নখে সাদা দাগ, মানসিক সমস্যা, ঘনঘন ইনফেকশন, দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, প্রোস্টেটের সমস্যা ইত্যাদি।

 

জিংক সমৃদ্ধ খাবারের তালিকা

 

আপনারা যানেন কী না জানি না! তবে আপনারা জানলে অবাক হবেন আপনারা রেগুলার যেসব খাবার খান তাতে জিংক থাকে অনেক খাবারে। নিম্নে কিছু জিংক সমৃদ্ধ খাবারের তালিকা দেওয়া হলো।

  • মাংস
  • ডিম
  • শাকসবজি
  • শস্য জাতীয় খাবার
  • বাদাম
  • ডার্ক চকলেট
  • দুধ

জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম

 

উপরে তো জিংক এবং জিংক বি ট্যাবলেট সম্পর্কে অনেক কিছুই জানলাম। তো চলুন এবার এই জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

প্রাপ্তবয়স্ক এবং শিশুদের জন্য (যাদের ওজন ৩০ কেজি এর উপরে) জন্য জিংক বি ট্যাবলেট টি এক থেকে দুইটি (১-২ টি) করে ট্যাবলেট প্রতিদিন ২ বেলা বা ৩ বেলা খাওয়া উচিত। তবে ট্যাবলেট টি খাওয়ার পূর্বে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী অবশ্যই নিবেন।

 

জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারিতা
জিংক বি সিরাপ খাওয়ার উপকারিতা

জিংক বি সিরাপ খাওয়ার নিয়ম

 

অনেকেই আছেন যারা ট্যাবলেট খেতে পছন্দ করেন না। তো আপনারা চাইলে জিংক বি সিরাপ খেতে পারেন। নিম্নে আমি জিংক বি সিরাপ খাওয়ার নিয়ম বলে দিচ্ছি।

প্রাপ্তবয়স্কঃ প্রতিদিন ১০ মি.লি (২ চা চামচ করে) দুই থেকে তিন বেলা

শিশুঃ প্রতিদিন ৫ মি.লি (১ চা চাুচ করে) দুই থেকে তিন বেলা।

তবে ঔষধ খাওয়ার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিবেন। আমি এক কথা বার বার বলছি কারণ স্বাস্থ্য টা আপনার, আমরা চাই না যে আপনারা ভূল কিছু করে বিপদে পরেন। তো অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন।

 

জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারিতা ভিডিও

 

 

শেষ কথাঃ

 

তো প্রিয় বন্ধুরা আজকের এই পোস্ট এ আপনারা জানলেন, জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারিতা, জিংক বি আমাদের জন্য কেন জরুরী, জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম ইত্যাদি। আশা করছি এই পোস্ট টি আপনাদের কাছে অনেক টা ভালো লেগেছে।

ভালো লেগে থাকলে কিন্তু অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আমাদের। আর এরকম সব পোস্ট পেতে প্রতিদিন ভিজিট করতে থাকুন আমাদের এই ওয়েব সাইট টি তে। আবার দেখা হবে পরবর্তী কোনো পোস্ট এ। সে পর্যন্ত সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেয।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *