বমির ট্যাবলেট এর নাম

হ্যালো প্রিয় ভিজিটর গণ, আশা করি সকলে অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের এই সাইটে আমার পক্ষ থেকে জানাই স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে বমির ট্যাবলেট এর নাম এই বিষয় টি নিয়ে কথা বলবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করে দেওয়া যাক।

 

যাত্রা পথে বমি একটি অসহ্যকর বাধা হয়ে দাঁড়ায়। অনেকেরই ছোট থেকে এই সমস্যা হয় না। তবে দেখা যায় শাতকরা ৪০ ভাগ মানুষেরই যাত্রা পথে বমি হয়। এটা সাধারণ একটি বিষয় হলেও, একটি অসহ্যকর সমস্যা। তাই সকলেই চান যে যাত্রা পথে যেনো বমি না হয় তাই না?

তো আজকের এই পোস্ট টি আমরা এজন্যই সাজিয়েছি। আজকে আমরা সম্পূর্ণ আর্টিকেল জুড়ে বমি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য কয়েকটি জরুরি ঔষধ তথা বমির ট্যাবলেট এর নাম সম্পর্কে জানবো।

 

বমির ট্যাবলেট এর নাম
বমির ট্যাবলেট এর নাম

 

বমির ট্যাবলেট এর নাম

 

আমাদের বাংলাদেশে অনেক ধরণেরই বমির ট্যাবলেট পাওয়া যায়। তাও আবার অনেকেই গুগলে সার্চ করেন বমির ট্যাবলেট এর নাম লিখে। তাই ভাবলাম আপনাদের সুবিধার্থে জানিয়ে দিই কয়েকটি কাজের বমির ট্যাবলেট এর নাম।

যাত্রা সময় বমি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য “জয়ট্রিপ” ট্যাবলেট টি বেশ ভালো কাজে দিয়ে থাকে। তবে এই জয়ট্রিপ ছাড়াও প্রোমিথাজিন, হায়োসিন, ওনডারটেসরন, মেকলোজিন, ট্যাবলেট গুলোও বেশ ভালো কাজে দিয়ে থাকে বমি থেকে রক্ষার জন্য।

 

বমির ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম

 

বমির ট্যাবলেট এর নাম জানার পরে সেটা ক্রয় করে আনার পরে অনেকেই আছেন সেটা খাওয়ার নিয়ম জানেন না। কেননা অনেকেই শুধু ঔষধ কিনে আনেন ডাক্তারের থেকে জেনে আসেন না যে কখন আর কীভাবে খেতে হয়।

See also  গলা ব্যথার ট্যাবলেট এর নাম

তাদের জন্য জানিয়ে রাখি, যে বমির ট্যাবলেট বমি বমি ভাব হলেই খাওয়া যায়। তবে যাত্রার সময় বমি থেকে বাচার জন্য সহজ পদ্ধতি হলো, বমির ট্যাবলেট টি যাত্রার আগের দিন রাতে ঘুমানোত আগে ১ টা এবং যাত্রার ৩০ মিনিট আগে আরো একটা খাওয়া। এরপর আশা করা যায় বমি খুব একটা হবে না।

 

আরো পড়ুনঃ মেহেরিন নামের অর্থ কী?

 

তবে যদি যাত্রা টি অনেক দূরের হয়, তবে বাসে বমি বমি ভাব হলে আরো একটি অথবা বড় যাত্রায় বাস যেখানে ব্রেক নিবে খাবারের জন্য সেখানে আরো একটি খেয়ে নেওয়া।

 

বাচ্চাদের বমি বন্ধ করার ঔষধের নাম

 

সব ধরণের বমির ট্যাবলেট বাচ্চাদের খাওয়ানো ঠিক নয়। কেননা বমি ট্যাবলেট এর ও একটি পাওয়ার আছে যা অধিক মাত্রায় বাচ্চাদের শরীরে গেলে সময়া হয়ে যায়। এক্ষেত্রে আমি বলবো বাচ্চাদের জন্য সব থেকে ভালো বমির ঔষধ হলো জয়ট্রিপ

তবে খেয়াল রাখবেন জয়ট্রিপ ১৫০ পাওয়ার এর টা বাচ্চাদের জন্য। এবং জয়ট্রিপ ৩০০ পাওয়ার এর টা বড়দের অর্থাৎ ১২ বছরের উপরের জন্য। আর এই জয়ট্রিপ ঔষধ টি মিষ্টি হওয়ায় খুব সহজেই বাচ্চারা চুষে খেতে পারবে সিভিট এর মতো। তাই ঔষধ খাওয়াতেও কোনো সমস্যা হবে না।

 

বমির ট্যাবলেট অমিডন

 

বমিকে দ্রুত হ্রাস করানোর জন্য অমিডন অত্যান্ত ভালো একটি ট্যাবলেট। বমি বমি ভাব পাওয়া মাত্রই যদি একটি অমিডন ১০ মিলি গ্রাম এর একটি ট্যাবলেট খাওয়া যায় তবে খুব শিঘ্রই এটি আপনার বমিকে হ্রাস করবে এবং বমিকে আটকাবে। তাই যাত্রা পথে এটি আরো ভালো একটি বমির ট্যাবলেট।

 

গর্ভাবস্থায় বমির ট্যাবলেট এর নাম

 

গর্ভাবস্থায় মেয়েদের বমি হওয়াটা স্বাভাবিক। কেননা এই সময় মেয়েদের শরীরের হরমন ওঠা নামা করায় এর প্রতিক্রিয়া হিসেবে মেয়েদের বমি হয়ে থাকে। কেননা হরমন ওঠা নামা করায় মেয়েদের শরীরের হরমন এর অভাব দেখা দেয়। এর জন্য বমি হয়ে থাকে।

See also  খুশকি দূর করার উপায়

তবে বমি থেকে রক্ষার জন্য সকালে ঘুম থেকে উঠেই তরল জাতীয় খাবার যেমন পানি, চা, কফি না খেয়ে কঠিন জাতীয় খাবার যেমন বিস্কুট খান। আর ট্যাবলেট এর দিক থেকে আপনি বমির ট্যাবলেট হিসেবে প্রিডক্স ২০, ভারটিনা ডি-২০, ডিক্লিজ প্লাস ২০, ভমিক্স ডি আর, এমেডক্স।

এই বমির ট্যাবলেট গুলো গর্ভাবস্থায় বমি থেকে দূরে থাকতে অনেকটাই সাহায্য করবে। এই বমির ট্যাবলেট গুলো ঠিকমতো খেতে থাকলে বমির আশঙ্কা থেকে কিছুটা হলেও রক্ষা পাবেন।

 

শেষ কথা

 

তো ভিজিটর গণ আশা করি এই পোস্ট টি আপনাদের কাছে অনেক ভালো লেগেছে। ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই কিন্তু কমেন্ট করে জানাবেন। আর এরকম সব পোস্ট পেতে প্রতিদিন ভিজিট করতে থাকুন আমাদের এই ওয়েব সাইট টি। আবার দেখা হবে পরবর্তী কোনো পোস্ট এ। সে পর্যন্ত সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেয।

Leave a Comment