Bloggingব্লগিং

ব্লগিং কি ? ব্লগিং কিভাবে শুরু করা যায় ?

ব্লগিং কি ? ব্লগিং কিভাবে শুরু করা যায় ?

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় বন্ধুরা । কেমন আছেন সবাই । আশা করি আল্লাহ রহমতে ভালো আছেন । আমিও আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি । ফ্রি ব্লগিং কোর্স এর ধারাবাহিক টিউটরিয়ালে আজকে আমি আপনাদের সাথে কথা বলবো ।

ব্লগিং কি ? ব্লগিং কিভাবে শুরু করা যায় এই টপিক নিয়ে । আজকের পোষ্ট টি যদি আপনি মনোযোগ সহকারে শেষ পর্যন্ত পড়েন তাহলে আশা করি ব্লগিং নিয় আপনার মনে আর কোন প্রশ্ন থাকবে না ইনশাআল্লাহ ।

ব্লগিং কি ? 

অনেকেই প্রশ্ন করেন ব্লগিং কি ? ইন্টারনেটে মত প্রকাশ, বিভিন্ন ধরনের তথ্য শেয়ার ও ডেইলি লাইফের নানান দিক নিয়ে আলোচনা করার অন্যতম একটি জনপ্রিয় স্থান হলো ব্লগিং (Blogging)।

একটি সহজ উধারহন দিয়ে বুঝাই বিষয়টি । আপনি গুগলে সার্চ দিলেন “ ব্লগিং কিভাবে শুরু করবো” লিখে এখন দেখবেন অনেক ওয়েবসাইট পাবেন । যারা ব্লগিং কিভাবে শুরু করতে হয় সেটা সুন্দরভাবে গুছিয়ে লিখে রেখেছে ।

ব্লগিং কি ?

এই যে  যারা আপনার জিঙ্গাসার উত্তর লিখে রাখলো   তারাই মুলত ব্লগার । যেখানে লিখলো সেটা হলো ব্লগ । আর এই পুরো প্রক্রিয়াটা হলো ব্লগিং ।

ব্লগিং কিভাবে শুরু করা যায় ?

 

ব্লগিং কি সেটা তো জানলেন ।  এবার নিশচয় মনে চাচ্ছে নিজেও  একটু ব্লগিং করি । কিন্তু ভাবতেছেন ব্লগিং কিভাবে শুরু করা যায় । নো টেনশন ! আমি তো আছিই আমি আপনাকে জানাবো কিভাবে ব্লগিং শুরু করা য়ায় ।

[box type=”info” align=”aligncenter” class=”” width=””]ব্লগিং শুরু করতে হলে প্রথমেই আপনাকে মাইন্ড সেটআপ করতে হবে[/box]

ব্লগিং শুরু করতে হলে আপনার যা যা লাগবে 

 

প্রাথমিকভাবে ব্লগিং এ আসতে হলে আপনার কাছে একটি ভালো মানের ফোন বা পিসি থাকতে হবে । দ্রুতগতি সর্ম্পন ইন্টরনেট সংযোগ থাকতে হবে ।

এবার আপনাকে ভাবতে হবে আপনি কি বিষয়ে ইন্টারেষ্টেড । কি  কি বিষয়ে আপনি সুন্দরভাবে গুছিয়ে মানুষজন কে বোঝাতে পাারেন ।  যাকে ব্লগিং এর ভাষায় বলা হয় নিশ । প্রথমেই আপনাকে নিশ সিলেকশন করতে হবে ।

আমার ব্যাক্তিগত পরামর্শ হলো যদি আপনি বাংলাদেশ কে টার্গেট করে ব্লগিং শুরু করতে চান তাহলে আপনার জন্য শিক্ষা নিশ এবং টেকনোলিজি নিশ মোটামুটি ভালো । আপনি এই দুটি নিশের যেকোন একটি নিশে কাজ করলে সহজে দ্রুত ভালো ফলাফল পাবেন ইনশাআল্লাহ ।

ব্লগিং কিভাবে শুরু করা যায় ?

 

ব্লগিং শুরু করতে হলে প্রথমে আপনার দরকার একটি নিশ । নিশ সিলেকশনের পর একটি টপ লেভের ডোমেইন কিনে সাথে একটি হোস্টিং প্যাকেজ কিনে ওয়ার্ডপ্রেসে সাইট বানাতে পারেন ।

এবার কিওয়ার্ড রিসার্চ করে কন্টেন্ট লেখা শুরু করুন । অনজেপ অফ পেজ এসইও করুন । দেখবেন আস্তে আস্তে সাইটের বয়স বাড়ার সাথে সাথে ভিজিটরও বাড়তেছে।

সাইটের  পোষ্ট যখন ৩৫/৪০ টা হবে তখন এডসেন্সে আবেদন করে দিন । ইনশাআল্লাহ এডসেন্স এপ্রুভ পেয়ে যাবেন  । এরপর ধারাবাহিকভাবে আপনার ব্লগে পোষ্ট করতে থাকবেন । ভিজিটরও বাড়তে থাকবে । সেই সাথে বাড়বে আপনার ইনকামের মাত্র।

আর তাছাড়া ব্লগিং শুরু করার জন্য আমরা একটি ফ্রি ব্লগিং  কোর্স চালু করেছি সেটা দেখতে পারেন। কোন পরার্মশের দরকার হলে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে যুক্ত হয়ে প্রশ্ন করতে পারেন । আমরা চেষ্টা করবো হেল্প করার ইনশাআল্লহ ।

 

 

কিভাবে ব্লগিং শুরু করলে দ্রুত ইনকাম করা যায় ?

 

ব্লগিং নিয়ে প্রশ্ন উত্তর পর্ব 

 

প্রশ্নঃ কিভাবে ব্লগিং শুরু করতে হয়?

 

কিভারে ব্লগিং শুরু করতে হয়ে সেটা পোষ্টের শুরুতে বলেছি দয়া করে দেখে নিবেন

প্রশ্নঃ ব্লগিং এর কাজ কি ?

 

ব্লগ হল এক ধরনের অনলাইন ব্যক্তিগত দিনলিপি বা ব্যক্তিকেন্দ্রিক পত্রিকা। ব্লগ শব্দটি ওয়েবব্লগের সংক্ষিপ্ত রূপ। যিনি ব্লগে পোস্ট করেন তাকে ব্লগার বলা হয়।

ব্লগাররা প্রতিনিয়ত তাদের ওয়েবসাইটে কনটেন্ট যুক্ত করেন আর ব্যবহারকারীরা সেখানে তাদের মন্তব্য করতে পারেন।

প্রশ্নঃ ব্লগার হবো কিভাবে ?

 

উত্তরঃ একজন সফল ব্লগার হওয়ার জন্য আপনার টাইম ম্যানেজমেন্ট ও ব্লগ ম্যানেজমেন্ট  দুটো বিষয়েই ধ্যান দিতে হবে।  দেখুন, প্রথম অবস্থায় ব্লগিং এ কেবল ৩ থেকে ৪ ঘন্টা সময় দিয়ে কাজ করলেই হবে। কিন্তু, যখন আপনি ব্লগিং কে একটি প্রফেশন হিসেবে নিয়ে কাজ করা শুরু করবেন, তখন ৩ থেকে ৪ ঘন্টা কাজ করলে চলবেনা।

প্রশ্নঃ ব্লগিং এর জনক কে ?

 

উত্তরঃ ইভান উইলিয়াম্স।

উত্তরঃ  ব্লগ পোস্ট হচ্ছে, লিখিত কনটেন্ট। আপনি যে পোস্টটি এখন পড়ছেন এটিও একটি লিখিত কনটেন্ট।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *