সোনালী ব্যাংক শিক্ষাবৃত্তি ২০২২। আবেদন করার নিয়ম

হ্যালো প্রিয় ভিজিটর গণ, আশা করি সকলে অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের এই সাইটে আমার পক্ষ থেকে জানাই স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে সোনালী ব্যাংক এর শিক্ষা বৃত্তি এই বিষয় টি নিয়ে কথা বলবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করে দেওয়া যাক।

 

সোনালী ব্যাংক বৃত্তি ২০২২

•বৃত্তি দাতা : সোনালী ব্যাংক লিমিটেড

•আবেদনের তারিখ : ২৭-২-২০১২ থেকে ১৮-৩-২০২২

•প্রার্থীর যোগ্যতা : এইচএসসি/সমমান উত্তীর্ণ (২০১৯/২০২০ সালে পাস)

•বৃত্তির পরিমাণ : ১০,০০০ টাকা (এককালীন)

 

সোনালী ব্যাংক স্কলারশিপ ২০২২

বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংক সোনালী ব্যাংক প্রতি বছরের মতো এবারো শিক্ষাবৃত্তি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। দেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর মধ্যে বিরাজমান অসাম্য, বঞ্চনা, দারিদ্র দূরীকরণ এবং সুবিধা বঞ্চিত জনসাধারনের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে শিক্ষার গুরুত্ব বিবেচনা করে,

শিক্ষাবৃত্তি প্রদানের নিমিত্ত মেধাবী দরিদ্র শিক্ষার্থী, দরিদ্র মুক্তিযোদ্ধার মেধাবী পুত্র/ কন্যা/ নাতি/ নাতনী এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের নিকট হতে অনলাইনে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদনের আহবান করেছে।

যারা ২০১৯ অথবা ২০২০ সালে এসএসসি বা সমমান/ এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় পাস করেছেন, শুধু তারাই এই বৃত্তির জন্য আবেদন এর সুযোগ পাবেন।

 

আরো পড়ুনঃ চিঠি লেখার নিয়ম

আবেদনের যোগ্যতা

•২০১৯ অথবা ২০২০ সালে এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে বর্তমানে এইচএসসি বা সমমান পর্যায়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।

•২০১৯ অথবা ২০২০ সালে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে বর্তমানে স্নাতক বা সমমান পর্যায়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।

•এইচএসসি বা সমমান পর্যায়ে অধ্যয়নরত সাধারণ শিক্ষার্থী/মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যা/ তদীর পুত্র-কন্যাদের ক্ষেত্রে জিপিএ ৫.০০ এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ প্রাপ্ত হতে হবে।

•স্নাতক/সমমান পর্যায়ে অধ্যয়নরত সাধারণ শিক্ষার্থী/ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যা/ তদীর পুত্র-কন্যাদের ক্ষেত্রে জিপিএ ৫.০০ এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে ন্যুনতম জিপিএ ৩.৫০ প্রাপ্ত হতে হবে।

•শুধুমাত্র দরিদ্র শিক্ষার্থী/প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী/অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যা/ তদীর পুত্র-কন্যা (যাদের পিতা/অভিভাবকের মাসিক আয় সর্বোচ্চ ১৫,০০০ টাকার বেশি নয়) আবেদন করতে পারবেন।

মেধাবী শিক্ষার্থীদের এককালীন ১০,০০০ টাকা শিক্ষাবৃত্তি দেবে সোনালী ব্যাংক। মেধাবী শিক্ষার্থী, দরিদ্র মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, ও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের এ বৃত্তি সুবিধা দেওয়া হবে।

সোনালী ব্যাংক লিমিটেড দিচ্ছে শিক্ষাবৃত্তি ২০২২
সোনালী ব্যাংক লিমিটেড দিচ্ছে শিক্ষাবৃত্তি ২০২২

যারা আবেদন করতে পারবে

যেসব শিক্ষার্থীর অভিভাবকের মাসিক আয় সর্বোচ্চ ১০,০০০ টাকা এবং যারা ২০১৪ সালে এসএসসি/ সমমান অথবা এইচএসসি/ সমমান অথবা স্নাতক (ডিগ্রি/ অনার্স) অথবা সমমান পরীক্ষায় পাশ করেছে তারা বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।

এইচএসসি অধ্যায়নরতদের ক্ষেত্রে এসএসসি পরীক্ষায় সাধারণ দরিদ্র শিক্ষার্থীদের ন্যূনতম জিপিএ ৪ পেয়ে, মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জিপিএ ৩.৫ পেয়ে এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জিপিএ ২.৫ পেয়ে পাশ করতে হবে।

স্নাতক পড়াশোনা করছে- এমন শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে এইচএসসি পরীক্ষায় সাধারণ দরিদ্র শিক্ষার্থীদের ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ পেয়ে, মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জিপিএ ২.৭৫ পেয়ে এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জিপিএ ২.০০ পেয়ে পাশ করতে হবে।

স্নাতকোত্তর অধ্যায়নরতদের ক্ষেত্রে স্নাতক পরীক্ষায় সাধারণ দরিদ্র শিক্ষার্থী, মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জিপিএ ২.৭৫ পেয়ে এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জিপিএ ২.০০ পেয়ে পাশ করতে হবে।

 

আবেদন এর নিয়ম

সোনালী ব্যাংকের ওয়েবসাইটে www.sonalibank.com.bd/csr বৃত্তির ফরম পূরণ করতে হবে। প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সরবরাহ করতে হবে। তাহলেই আবেদন পূরণ হবে।

 

তো ভিজিটর গণ আশা করি পোস্ট টি আপনাদের কাছে ভালো লেগেছে। ভালো লেগে থাকলে কিন্তু অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আর এরকম পোস্ট পেতে প্রতিদিন ভিজিট করতে থাকুন আমাদের এই সাইট টি। আবার দেখা হবে পরবর্তী কোনো পোস্ট এ। সে পর্যন্ত সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেয।

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *